Books

আমলার মন Pdf Download (Full)

amlar mon pdf book – আমলার মন Pdf Download free link:

Bangla Pdf Download link

১৮৯৬ খ্রিস্টাব্দে এই লালবাঁধ দীঘি থেকে পাওয়া গেল কয়েকটি মুসলমানী ভোজনপাত্র, একটি লৌহশৃঙ্খল, আর একটি নারীর ক

.ঙ্কাল । .  বিষুঃপুরের নুরজাহান-_লালবাঈয়ের কঙ্কাল প্রায় দুশো বছর পরে পৃথিবীর হালকা বাতাসে নিঃশ্বাস নিল ।

আজও বোধহয় বিষুঃপুর-প্রাসাদের ধবংসাবশেষে, লালবাঁধের কিনারায়, রঘুনাথ সিংহের ছিন্নতন্ত্রী তানপুরার তারে লালবাঈয়ের নিরুদ্ধ কান্না গুমরে মরে। একটি অতৃপ্ত আত্মা যেন তার দয়িতের সন্ধানে ঘ্বুরে বেড়ায় ; অকন্মাৎ বাতাসে দীর্ঘস্বাসের শব্দ শুনে চমকে ফিরে তাকায় আজকের মানুষ । দুর্গের ভগ্ন প্রাকারে, অলিন্দে, পরিখায়, মদনমোহন আর মল্লশিবের মন্দির-প্রাঙ্গণে, পুবের লালবাঁধ, কৃষ্ণবাঁধ, শ্যামবাঁধ, আর পশ্চিমের যমুনাবাঁধ, কালিন্দীবাঁধ, গন্টনবাঁধে এক ব্যর্থযৌবন যবনকন্যার প্রেতাত্মা যন তার প্রেমিককে খুঁজে বেড়ায় ।  বিষুপুরের নুরজাহান-_এই লালবাঈয়ের জীবন-কাহিনী জানতে হলে ফিরে যেতে হবে, ফিরে যেতে হবে ইতিহাসের এক রোমাঞ্চকর অধ্যায়ে ।

আজ থেকে প্রায় আড়াইশো বছর আগে ।  ভারতের সিংহাসনে তখন আওরেঙ্গজেব বাদশাহ গাজী ; বাংলার মসনদে সুবাদার শায়েস্তা খাঁ। উড়িষ্যায় তখনও পাঠানশক্তির ভল্মাবশেষে ধোঁয়া উঠছে থেকে থেকে, আর বাংলার পশ্চিম প্রান্তসীমায় কখনো-সখনো এসে পৌছচ্ছে বর্গী লুটেরার অত্যাচার ।  লালবাঈয়ের জীবনকাহিনী জানতে হলে ফিরে যেতে হবে, আজ থেকে আড়াইশো বছর আগে, বিবিবাজারের মেলায়। কালো বোরখায় শরীর-লুকোনো এক রূপসী বাঁদীর পিছনে পিছনে ।  বিবিবাজারের সওদা হয়ে এসেছিল এক দস্[ূলুঠিত বাঁদী, এসে স্বপ্ন দেখেছিল বেগম হওয়ার ।  স্ব্ন নয়, দুচ্বগ !  আজও পূর্ণিমার রাত্রে লালবাঁধের পাড়ে দাঁড়িয়ে বাতাসে কান পাতলে একটা করুণ কান্নার সুর শোনা যায় ।

জলের ওপর গাছের শাখা আর জ্যোৎমনার ‘লুকোচুরি দেখে হঠাৎ মনে হয় যেন এক অনিন্দযসুন্দরী হাতছানি দিয়ে ডাকছে ।  সে দৃশ্য দেখে চমকে ওঠে অনেকে, সারা দেহ রোমাঞ্চিত হয়ে ওঠে ভয়ে, বিস্ময়ে, অপার্থিব এক পুলকে ।  বিবিবাজারের লোকও হঠাৎ সেদিন এমনি ভাবেই চমকে. উঠেছিল । প্রথমবার চমকে উঠেছিল ঘোড়ার খুরের শবে, দ্বিতীয়বারসুদর্শন আরোহীর দিকে তাকিয়ে ।  বিবিবাজার তখন জমজমাট । সারা ভারতের চতুর্দিক থেকে লোক এসে জমেছে। কেউ এসেছে সওদী বেচতে, কেউ বা সওদা করতে ।

পুবে বেগমসাহেবার কবর থেকে পশ্চিমের মতিঝিল অবধি সারি সারি তাঁবু ৷ চাঁদনি রাতে মনে হয় যেন ঘাসের গালিচায় সারি সারি সাদা-পালক পায়রা বসে আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!