Books

চরিত্রহীন উপন্যাস PDF Downlolad (শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়)

Book Name: Charitraheen by Sarat Chandra pdf download | চরিত্রহীন শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় উপন্যাস pdf download and review:

bookচরিত্রহীন
Author
Publisher
Countryভারত
typepdf

চরিত্রহীন উপন্যাসের সারাংশ – চরিত্রহীন বই রিভিউ-

সারাংশ- শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের সেরা উপন্যাসগুলোর মধ্যে ‘চরিত্রহীন’ উপন্যাসটিও সর্বমহলে অন্যতম সেরা বলে প্রতীয়মান,শরৎচন্দ্রের সম্ভবত ”বড়দিদি উপন্যাস ছাড়া অন্য কোনো উপন্যাস পড়া হয় নাই বলেই নিজস্ব মতামত দিতে পারছি না।একজন ধৈর্য্যহীন ও অমনোযোগী পাঠক হয়ে এমনকি সাহিত্য ও তাহার রস সম্পর্কে একেবারে ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র জ্ঞান নিয়ে একটি উপন্যাসের রিভিউ লিখার মতো দুঃসাধ্য কাজ করতে বসে পড়লাম!তাই ভুল-ত্রুটি ক্ষমা করে সুন্দর ভাষায় গঠনমূলক সমালোচনাই কামনা করি!এতে বইপড়ার উৎসাহ বাড়বে বলেই বিশ্বাস করি।
শরৎচন্দ্রমানেই চিত্রকল্পের বাস্তবিক ব্যবহার সেটি ‘চরিত্রহীন’ উপন্যাসেও স্পষ্ট।’চরিত্রহীন’ উপন্যাসটি কিছু ব্যক্তিমানুষের মানসিক অন্তর্দ্বন্ধ,অসম প্রেমের গল্প ও তার ফলে সৃষ্ট অবশ্যম্ভাবী দুঃখের পরিণতি এবং সেইসাথে চির কাঙ্ক্ষিত ভালোবাসার উত্থান-পতনের প্রেক্ষাপট নিয়ে রচিত।উপন্যাসটিতে সমাজ এবং হিন্দু রীতি-নীতির প্রভাবকেও উপেক্ষা করার সুযোগ নেই!
উপন্যাসটি রচনার ক্ষেত্রে যে চরিত্রগুলো মুখ্য সেই চরিত্রগুলো প্রত্যেকেই নিজ চিন্তা-চেতনা ও কর্মে স্বাতন্ত্র্য লাভ করেছে যা উপন্যাসটিকে ভিন্ন মাত্রা দিয়েছে নয়তো উপন্যাসটিকে শুধু প্রেম-ভালোবাসার নৈমিত্তিক ঘটনার সমাহার বলে চালিয়ে দেওয়া খুব দুরুহ হয়ে উঠতো না!উপন্যাসটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে থাকা উপেন্দ্র ও সতীশ উভয়েই অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারী!তবে দুইটি চরিত্রের তফাতও আকাশ-পাতাল।জীবনের নানা প্রতিকূলতা অতিক্রম করলেও মৃত্যু অবধি উপেন্দ্র নিজ সৎ গুণাবলি ও কর্ম থেকে বিন্দুমাত্র বিস্মৃত হননি।অপরদিকে,জীবনের নানা প্রতিকূলতায় সতীশ বারবার ভেঙেছে আবার গড়ে উঠেছে,বারবার পথভ্রষ্ট হয়েছে।
‘চরিত্রহীন’ উপন্যাসটিকে রুপ ও সার্থকতা দিয়েছে ‘কিরণময়ী ও সাবিত্রী’ নামের দুটি চরিত্র!ভাগ্যের নির্মম পরিহাসের শিকার হলেও উপন্যাসটিতে সাবিত্রী হয়ে উঠেছে এক অসাধারণ মহীয়সী নারী!তার কঠিন জীবন সংগ্রাম, দৃঢ়চেতনা ও বুদ্ধিদীপ্ত পদচারণা এবং আত্মত্যাগই সাবিত্রীকে মহীয়সী করে তুলেছে!উপন্যাসের সবচেয়ে রহস্যজনক ও দুর্বোধ্য চরিত্রটি হলো কিরণময়ী!কিরণময়ী চরিত্রটিই আপনার চেতনায় আঘাত হানবে,আপনাকে ভাবতে বাধ্য করবে।কিরণময়ীকে বিশ্লেষণ করা আমার কাঁচা হাতে অনেকটাই সম্ভব নয় বলে প্রতীয়মান হচ্ছে!কিরণময়ী উপন্যাসটিতে বারংবার ভিন্নমাত্রা যোগ করেছে।অপরুপ সৌন্দর্যের অধিকারিণী কিরণময়ীর কঠিন জীবন সংগ্রাম,তার রহস্যময়তা,ভালোবাসার স্পর্শ লাভ না করতে পারার যাতনা,নিষিদ্ধ পাপে দগ্ধ হবার যন্ত্রণা উপন্যাসে প্রাণ দিয়েছে।কিছু মানবীয় দোষে দুষ্ট থাকলেও গল্পের শেষে কিরণময়ীকেও অসাধারণ করে তোলার প্রবণতা যে লেখকের ছিলো তা স্পষ্ট।এই চরিত্রগুলো ছাড়াও সুরবালা,সরোজিনী,দিবাকর চরিত্রগুলোও উপন্যাসটিকে বিশিষ্ট করে তুলেছে।উপন্যাসের অসম প্রেমের দুঃখ-যন্ত্রণা এবং শেষাংশে উপেন্দ্রর মৃত্যু পাঠকের মনে যে দাগ কাটবে তা আর বলার আক্ষেপ রাখে না।
-মোঃ তুষার মিয়া
ইংরেজি বিভাগ,ঢাবি

শরৎচন্দ্রের চরিত্রহীন উপন্যাসের উক্তি-

“যাহাকে ভালোবাসি সে যদি ভালো না বাসে,
এমনকি ঘৃণাও করে তাও বোধ করি সহ্য হয়!
কিন্তু যাহার ভালবাসা পাইয়াছি
বলিয়া বিশ্বাস করেছি, সেইখানে ভুল
ভাঙ্গিয়া যাওয়াটাই সবচেয়ে নিদারুন।
পূর্বেরটা ব্যথা দেয়।
কিন্তু শেষেরটা ব্যথাও দেয়, অপমান ও করে।”

চরিত্রহীন পিডিএফ ডাউনলোডCharitraheen download link

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!