Books

খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান বই Pdf Download (All)

হ্যালো বন্ধুরা এই পোষ্টের মাধ্যমে তোমরা খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান বই pdf download লিং সকল পেয়ে যাবে. Nutrition and Health Bengali Book PDF –

আমি পেশায় একজন ম্যাজিশিয়ান। গত দশ বছর ধরে ক্রমাগত চেষ্টায় আমি আমার পেশায়
এখন সফল। কিন্তু আমার স্বীকার করতে দ্বিধা নেই আমি আজ যেখানে এসে পৌছেছি তার
পিছনে আছে লেখক ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ক্রমাগত অনুপ্রেরণা, আশীর্বাদ ও তার লেখা
একটির পর একটি বই। তাই যখন আমি শুনলাম তিনি একটি বই লিখছেন ইতিবাদী দর্শনের
ওপর এবং এই বইটি কিশোর ও তরুণদের জন্য তখন আমি তাঁকে অনুরোধ করলাম আমার
অভিজ্ঞতাকে তার বইতে স্থান দিতে।

আজ থেকে এক যুগ আগে আমি ছিলাম হতাশায় ভেঙে পড়া অবসাদদ্রস্ত এক তরুণ।
জীবনের প্রতি আমার কোনও আকর্ষণ ছিল না। সব কিছুর মধ্যে আমি না দেখতাম। হ্যা
বলতে পারতাম না। কোনও কিছুই ভাল লাগত না।

হঠাৎ একদিন একটি বই আমার হাতে এল। তার নাম হতাশ হবেন না। (এটি অন্য এক
প্রকাশকের ছাপা হতাশ হবেন না-র প্রথম সংস্করণ । এখনকার মতো সুদৃশ্য মলাট ও ঝকঝকে
ছাপা নয়)। যতক্ষণ না শেষ হল ততক্ষণ তন্ময় হয়ে ছিলাম। পড়তে পড়তে অদ্ভুত এক
রোমাঞ্চ অনুভব করলাম। আরে, এ তো আমার উদ্দেশেই লেখা । তখনও পর্যন্ত ড.
চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে আমার চাক্ষুষ আলাগ ছিলানা। তবে তিনি একজন বড় সাংবাদিক ও গল্প
উপন্যাস লেখেন শুধু এইটুকু জানতাম। তখন আমি কথা বলা পুতুলের খেলা দেখিয়ে টুকটাক
রোজগার করছি। শুনলাম তিনি কলকাতা, পরম ক্লাবের একজন কর্মকর্তা। তাকে ফোন করে
ক্লাবের সদস্যদের ছেলেমেয়েদের কাছে কথা বলা পুতুলের খেলা দেখাবার অনুমতি চাইলাম।
তিনি অনুমতি দিলেন। প্রেস ক্লাবে তীর সঙ্গে সেই প্রথম আলাপ আমার।

এরপর আমি তার সান্নিধ্যে আসি ও তার পারিবারিক বন্ধু হয়ে যাই। দেখি আমার মতো
আরও কিছু তরুণ-তরুণী তার শিষ্য সম্প্রদায়ের অন্তর্ভূক্ত হয়ে গেছে। তারাও আমার মতো
ভর পাঠক। একদা আমার মতোই অবসাদে ভূগছিল। আজ তার সানিধ্যে এসে, তার বই
পড়ে সবাই নতুন জীবনের ছন্দে মেতে উঠেছে। আমরা সবাই সাধারণ মানুষ। আর সাধারণ
নুষ বলেই আমরা আমাদের পরস্পরের সুখে-দুষ্শখে আমাদের পরম গুরুর সঙ্গে এতগুলি
বছর কাটিয়ে দিতে পেরেছি। কারণ তিনিও যে আমাদেরই মতো সাধারণ মানুষ। গজদস্ত
হ্বনারে বসে থাকা বুদ্ধিজীবী লেখক নন।

আমার নিজের কথাই বলি। এখনও দেবদ্ধিজে আমার আস্থা নেই। এক সময় আমি ঘোরতর
যুল্তিবাদীদের দলে ছিলাম। কিন্তু কোনো অজানা আকর্ষণে আমি নিজেকে নিজে বদলাতে
শুরু করি। আমি পার্থবাবুকে “গুরুদেব বলে সম্বোধন করি। এই একটি মাত্র মানুষ যাঁকে আমি
প্যছুয়ে সাষ্টা্গে প্রণাম করি। আমার ঘরে কোনও দেবদেবীর ছবি নেই। শুধু পার্থচট্টোপাধ্যায়ের
স্ব অথচ তিনি নিজেকে অতি সাধারণ মানুষ বলেই মনে করেন। কোনও এঁশী শক্তির তিনি
কও দাবি করেননি। কখনও কোনও বিশেষ ধর্ম,দল বা মতের পক্ষে একটি কথাও বলেননি।
আনি দেখেছি শুধু হিন্দু নয়। কত মুসলমান তরুণও তাকে আপনজন বলে ভাবে। তিনি শুধু
একটির পর একটি বই লিখে ভেঙে পড়া হৃদয় জোড়া লাগান।

 

খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান বই pdf download

Download

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!