Booksজুনায়েদ ইভান এর বই পিডিএফ ডাউনলোড (All)

শেষ উপন্যাস জুনায়েদ ইভান Pdf download 💖- sesh zunayed evan book pdf

আমার মতে জুনায়েদ ইভান খুবই ইন্সপায়ার্ড একজন লেখক, তার ব্যাক্তিগত স্টাডি বেশ ভাল, পুরো লেখাজুড়েই কবিদের উক্তি বা কবিতা রয়েছে।  শেষ উপন্যাস জুনায়েদ ইভান Pdf download ও রিভিউ দেখে নিন।

তুমি কার্পেটের উপর এঁকেছিলে সমুদ্র
আমি সেথায় জাহাজ ভাসিয়ে দিলাম।

  • বইয়ের নামঃ শেষ
  • লেখকঃ জুনায়েদ ইভান
  • প্রকাশনীঃ কিংবদন্তী পাবলিকেশন
  • প্রকাশকঃ অঞ্জন হাসান পবন
  • মূল্যঃ ৩৫০ ৳
  • ক্যাটাগরিঃ সমকালীন উপন্যাস
  • রকমারী রেটিংসঃ ৪.২৭/৫
  • ব্যক্তিগত রেটিংসঃ ৪.৬/৫

রিভিউটা আমরা স্যান্ডউইচ (ব্রেড-লেটুস পাতা-ব্রেড) এর মতো করে উপস্থাপন করবো।

sesh zunayed evan book pdf

১ম ব্রেড অংশঃ এই ধাপে বইয়ের ভেতর কি আছে – সেই বিষয়ে কথা বলব।

কাহিনীসংক্ষেপঃ হাসান আর শিহাব রুমমেট। দুজন ভিন্ন পৃথিবীর মানুষ। কোন এক ব্যক্তিগত আলোচনার সূত্র ধরে শিহাব অনেক চিন্তা করে হাসানকে আত্মহত্যা করতে বলে। বলে, এ আত্মহত্যা নয়, এটা ‘আত্মবিসর্জন’। দড়ি কিনতেও হাসানকে পাঠিয়ে দেয় শিহাব। কিন্তু হাসান ফেরে একটা গোল্ডফিশ আর একুরিয়াম নিয়ে। নির্লিপ্তভাবে বলে, “আমি আত্মহত্যা করবো না!”

হাসান কেন শিহাবকে আত্মহত্যা করতে বলছে? কি করেছে হাসান? হাসানের ব্যক্তিগত যে গল্পটা শুনে শিহাবের মনে হয়েছে তার আত্মহত্যা করা উচিত, সেই গল্পটাই বা কি? জানতে হলে এখনই পড়ুন জুনায়েদ ইভানের “শেষ”!

নামকরণঃ উপন্যাসের চরিত্রগুলো তাদের বস্তুগত জীবনের শেষ পর্যায়ে এসে গল্পের আসর খুলে বসেছে, লেখক হয়তো সেখান থেকেই উপন্যাসের নাম ” শেষ ” রেখেছেন।

চরিত্রায়নঃ “শেষ” উপন্যাস একটি বহু চারিত্রিক উপন্যাস। এখানে চরিত্রের অলিগলিতে গল্পে ভরপুর। ” শেষ” অনেকটা সার্থক সাসপেন্স উপন্যাস এই কারণেই যে, সাসপেন্স উপন্যাসে যতগুলো চরিত্র থাকতে হয় সবগুলোই একটা জায়গায় গিয়ে মিলতে হয়। সহজভাবে, পরিণতিতে সবারই কোন না কোন হাত থাকতে হয়। জুনায়েদ ইভান অপ্রয়োজনীয় কোন চরিত্র সৃষ্টি করে সে ভুলটা করেননি। প্রধান চরিত্র অবশ্যই হাসান আর নিতু। তবে পাঠক কখনো শিহাবের ভেতর দিয়ে উপন্যাসকে নিয়ে এগোবে, কখনোবা হাসানের ভেতর দিয়ে। তবে আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র আছে- রুদ্র। সবগুলো সম্পর্ক ভালো করে বুঝতে হলে আপনাকে রীতিমতো খাতা কলম নিয়ে বসতে হবে।

প্লটঃ মূল প্লটটা একদম একলাইনে লেখা যায় না এই উপন্যাসে। তবু যদি বলতে হয় নিতু আর হাসানের বিচ্ছেদ কিভাবে হল- এই প্রশ্নের উত্তর জানতেই এক বিশাল ইতিহাস একের পর এক বেরোতে শুরু করে।

উপন্যাসের ছন্দময়তাঃ একবসায় শেষ করবার মতো উপন্যাস এটা নয়। জুনায়েদ ইভানের লেখা প্রাঞ্জল হলেও অনেক রূপক তিনি ব্যবহার করেছেন যেগুলো বুঝতে হলে আপনাকে সময় নিয়ে পড়তে হবে। তবে উপন্যাসের ছন্দময়তা যে শেষ অব্দি বজায় রাখতে পেরেছেন- লেখককে সেজন্য অভিনন্দন!

শেষ এর শেষঃ সফল সাসপেন্স প্লটের সফল শেষ-টা হয় একটা প্রশ্নের উত্তর অজানা রেখে। কাটাপ্পা কেন বাহুবলীকে মারল – এই বিখ্যাত প্রশ্ন দিয়ে যেমন বাহুবলী সিনেমা শেষ হয়েছিল, রুদ্র চিঠিতে কি লিখেছিল- এই প্রশ্ন দিয়ে তেমনি জুনায়েদ ইভান তার “শেষ”-এর শেষকে এঁকেছেন।

লেটুস পাতা অংশঃ এই ধাপে আমরা দেখার চেষ্টা করবো কেন শেষ উপন্যাস ০.৪ পয়েন্ট হারিয়েছে।

০.১ঃ হাসান আর নিতুর ক্যারেক্টার বিল্ডিংয়ে আমার একটু খটকা লেগেছে। দুজনকে কোথায় যেন এক করে ফেলেছেন ; যদিও এই সূক্ষ্ম বিষয়টা অসাধারণ প্লটের কাছে নস্যি।

০.১ঃ জুনায়েদ ইভান অসংখ্য উক্তি ব্যবহার করেছেন তার উপন্যাসে। এটা অবশ্যই সুন্দর। কিন্তু কোথাও কোথাও একটু বাড়তি মনে হয়েছে। দু একটা জায়গায় পরপর দুজন কবির উক্তি দিয়েছেন- এটা একটু বেমানান লাগে।

০.১ঃ জিবরানের উক্তি নিতু আওড়েছে, শেষের দিকে হাসানও আওড়েছে- বাস্তবে এমনটা কম হয়। স্পেসিফিক্যালি হাসান সাহিত্যের সাথে জড়িত নয়, অথচ তারও গুরুগম্ভীর উক্তি আওড়ানো একটু কেমন যেন।

০.১ঃ দুটো জায়গার কথা বলছি। ‘প্রশ্ন চিহ্নের মতো আকাশের তারা’ – এটা বুঝাতে গিয়ে ব্রাকেটে (?) লেখা আর ‘শুন্যস্থানের নিচে দাগ’- এটা বুঝাতে গিয়ে (——–) এরকম করে প্রকাশ করে আমার কাছে একটু কৃত্রিমতা এনেছেন বলে মনে হয়েছে।

২য় ব্রেড অংশঃ এখান আমরা দেখবো কীভাবে শেষ উপন্যাস ৪.৬ পয়েন্ট পেল।

১ পয়েন্টঃ উপন্যাসের শুরুতেই শেষের অংশটা রাখবার জন্য। এ এক অনবদ্য কাজ করেছেন লেখক।

১ পয়েন্টঃ অপ্রয়োজনীয় চরিত্র সৃষ্টি না করবার জন্য। এমনকি উপন্যাসের পাগল পথশিশুও পরিনতিতে ভূমিকা রেখেছে।

১ পয়েন্টঃ উপন্যাসের শেষ অংশে একটা প্রশ্ন রেখে সফল পরিসমাপ্তির জন্য।

১ পয়েন্টঃ নির্দিষ্ট করে কোন এক ব্যক্তিকে সম্পূর্ণ প্রাধান্য না দিয়ে সবগুলো চরিত্রের অলিগলি জুড়ে বর্ণনা দেওয়া।

০.৩ পয়েন্টঃ সমসাময়িক বিখ্যাত লেখকদের ভঙ্গিমার কোন প্রভাব জুনায়েদ ইভানের লেখায় পাওয়া যায়নি।
০.৩ পয়েন্টঃ পুরো উপন্যাসজুড়ে কোন ভুল বানান চোখে পড়েনি। অনেক যত্ন দিয়ে গড়া হয়েছে বইটি।

মোদ্দকথা, জুনায়েদ ইভানের শেষ উপন্যাস একটি বেস্টসেলার হওয়ার যোগ্য বই। Ashes এর গায়ক এবং লেখক জুনায়েদ ইভানের জন্য অবিরাম শুভকামনা।
শেষ করছি বইয়ের একটা প্রিয় উক্তি আওড়েঃ

“অনেকেই মনে করে, মানুষের কাছে অনেক গল্প থাকে, কথাটা আসলে সত্য না। মানুষের কাছে ঘটনা থাকে, গল্প তো খুঁজে বের করতে হয়!”

রিভিউ – প্রদীপ্ত দে চৌধুরী

ডাউনলোড করুন-

PDF Download link

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!