সমরেশ মজুমদার বই Pdf Download (All Books)

মনের মত মন Pdf Download

moner moto mon samaresh majumdar pdf book & Review:

বইয়ের নামঃ মনের মতো মন pdf free download
লেখকঃ সমরেশ মজুমদার
প্রকাশনীঃ আনন্দ পাবলিশার্স
প্রথম সংস্করণঃ নভেম্বর ১৯৯৬
মুদিত মূল্যঃ ৯০

পিডিএফ ও রিভিউ:

ক্রিকেট মানে উইকেট থেকে উইকেট মধ্যে দৌড়।
নিদিষ্ট মাপের দূরত্বে এক ক্রীড়াকৌশল।
কিন্তু জীবনের লাল বল ছুটে চলে তার নিজের মর্জিতে। সমরেশ মজুমদার এই উপন্যাসে সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন ক্রিকেট কবিতা ও নারীর সঙ্গে প্রাণের খেলা নিয়ে।
উপন্যাসে মূল চরিত্র স্বপ্নাশিষের স্বপ্ন ক্রিকেটের হওয়া। তার স্বপ্ন পূরনের দায়িত্ব নিয়েছেন কোচ হরিমাধব। তিলে তিলে তিনিই স্বপ্নাশিষকে গড়ে তুলেছেন ভালো ক্রিকেটার হিসেবে। এই হরিমাধবদা কে না জানিয়ে একদিন বন্ধু সুব্রতর সাথে খেপ খেলতে যায় শ্যামনগর। এই খেপ খেলতে গিয়েই দেখা হয়ে যায় অচেনা আহির সাথে। সেখান থেকেই এই দেখা বন্ধুত্বে রূপ নেয়। একপর্যায় স্বপ্নাশিষ আহিরকে স্থান দেয় তার হৃদয়আসনে।
কিন্তু সমস্যা হলো তার বাবা তাদের দুভাইকে ব্রহ্মাচারি করবেন। তার বাবার ইচ্ছে দু’ছেলে যেনো কোন নারীর সংস্পর্শে না যায়৷ বড় ছেলে দেবাশিষ তা মানলেও মানেনি ছোট ছিল স্বপ্নাশিষ। অনেক শঙ্কা,বাধা পেরিয়ে স্বপ্নকণ্যা আহিরকে আপন করে নিয়েছিলেন স্বপ্নাশিষ। তাদের জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু হয়। কিন্তু স্বপাশিষের পিতৃদেব তা মেনে নিয়নি। তাকে বাড়ি থেকে বের হয়ে যেতে হয়। এইভাবেই চলতে থাকে তাদের জীবনের মধুর কিছুটা সময়। কিন্তু হঠাৎ সমস্যা নেমে আসে তাদের সুখের সাম্রাজ্যে আহির অসুস্থ হয়ে পড়ে। এদিকে স্বপ্নাশিষকে যেতে হবে নিজের স্বপ্ন পূরণে দিল্লি। দোটানায় পড়ে যায় স্বপ্ন। দিল্লি যাবে নাকি আহির পাশে থাকবে। আর এইভাবেই এগিয়ে যায় অসাধারণ কাহিনী সংবলিত উপন্যাসটি।

মনে নাড়া দেওয়া শেষ কিছু লাইন –
অঙ্গ যেখানে থাকবে সেখানে প্রত্যন্ত নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছ কেন?
আমি তোমাকে চাই। এই মুখ, এই হাসি এই কথা, ব্যস এইটুকু। পৃথিবীর কোটি কোটি নারীর ইউটেরাস অথবা বুকের সঙ্গে তোমার পার্থক্য আমি করতে পারব না কিন্তু পৃথিবীর কোনও মানুষীর মুখ তোমার মুখকে আড়াল করতে পারবে না।’

‘তুমি ঠিক বলছ।’

‘ঠিক’

‘তিনবার বল’

‘ঠিক ঠিক ঠিক’

শেষ করছি আহিরের মুখে প্রিয় কবি
জীবনানন্দের
“তোমাকে ভালবেসে” কবিতা দিয়ে-

আমার মনে অনেক জন্ম ধরে ছিল ব্যাথা

বুঝে তুমি এই জন্মে হয়েছ পদ্মপাতা;

হয়েছ তুমি রাতের শিশির –

শিশির ঝরার স্বর

সারাটি রাত পদ্মপাতার পর;

তবুও পদ্মপাত্রে এ জল আটকে রাখা দায়।

লিংক:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!