বাংলা পিডিএফ বই সমগ্র (all)

(৯০০টি) কবিতার বই Pdf Download

সে বেশ কয়েকবছর আগের কথা। গবেষণার কাজে পুণের একটি সংস্থায় মাঝে মাঝেই যাই। বিজ্ঞানের নানান অর্থবোধক-অনর্থবোধক আলোচনায় নিরত থাকি – আঙ্কিক অথবা অনাঙ্কিক। সামগ্রিক ব্যাপারটাও হয় ইংরাজিতে – এমনকি খাদ্যাঞ্চলেও। খাইবার পাস নিয়ে দাঁড়ালেই নানা বিচিত্র অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হয়। ইংরাজিতে প্রথামাফিক কথাবার্তা-প্রবন্ধ রচনায় অসুবিধা না থাকলেও (এই সাফাই গেয়ে রাখলাম, নইলে লোকে আবার অশিক্ষিত বলে মনে করবেন – এমনিতেই বিলেত-ফিরিনি) কোন ভাষায় ঠিক কোন জিনিসটি চাইলে বঙ্গদেশে সুপ্রচলিত ‘ডিমের পোচ’ পাওয়া যাবে তা নিয়ে বিড়ম্বনার অন্ত নেই – তদুপরি ঐটি (বা অন্য) খাদ্য পাচনে বঙ্গীয় অপারগতার কারণে হওয়া পেটগুড়গুড় সংস্থার ডাক্তারবাবুকে ঠিক কোন শব্দের দ্বারা বোঝাবো সে ভয়েই এমনিই পেট গুড়গুড় করতে থাকে। খাস বাঙালের ছা’ (নির্ভেজাল নয়, আসলে বারিন্দিরের ছা’) – বাংলা বলতে না পেরে মাথা ঝিমঝিম, দাঁত কনকন, পা কটকট করতে থাকে – সেগুলি ইংরাজি ভাবতে ভাবতে প্রতিটি উপসর্গই ক্রমবর্ধমান (স্বাভাবিক স্ফীতোদর – অতএব পেট ফুলবার সমস্যাটি হয় নি)। মনে হতে লাগলো – বাংলা বই পড়া দরকার – সবচেয়ে ভালো হয় যদি কিছু কবিতা পড়ি।

bangla poetry books pdf | bangla kobita book | srijato bengali poems pdf free download | romantic bangla kobita pdf | bangla kobita download | bangla kobita collection | bangla literature pdf | Bangla Premer Kobita pdf Free Download | Adhunik Bangla Kobita PDF | Rabindranath Tagore Bangla Kobita pdf | Bangla Kobita download | Romantic bangla Kobita pdf | Bangla poem book pdf free download

কবিতার বই pdf download | রুদ্র গোস্বামীর কবিতার বই pdf | ১৮+ কবিতা pdf | সেরা কবিতার বই | প্রেমের কবিতা সমগ্র pdf | আবৃত্তির কবিতা সমগ্র pdf | আধুনিক কবিতা pdf | বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের কবিতা pdf | অনুবাদ কবিতা pdf download | হেলাল হাফিজের কবিতার বই pdf | অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত কবিতা pdf download | আবৃত্তির কবিতা সমগ্র pdf | শ্রীজাত কবিতা সমগ্র pdf download | আবৃত্তির কবিতা রবীন্দ্রনাথ | সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত কবিতা সমগ্র pdf | রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কবিতা সমগ্র pdf | ১৮+ কবিতা pdf | কবিতা সিংহের কবিতা সমগ্র pdf | আবৃত্তির কবিতা কবিতার আবৃত্তি pdf | বিষ্ণু দে কবিতা সমগ্র pdf download | রুদ্র গোস্বামীর কবিতা pdf download |সেরা কবিতার বই – দেবব্রত সিংহের কবিতার বই pdf | অনুবাদ কবিতা pdf | প্রেমের কবিতার বই pdf | নির্বাচিত কবিতা pdf

দিনগুলি রাতগুলি ।। শঙ্খ ঘোষ.pdf Download Now
কবিতাসমগ্র ১ খণ্ড ।। বিষ্ণু দে.pdf Download Now
লঘুসঙ্গীত ভোরের হাওয়ার মুখে ।। অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত.pdf Download Now
আধুনিক বাংলা কবিতা ।। দিনেশ দাস সম্পাদিত.pdf Download Now
৬০ কবির সাম্প্রতিক কবিতা ।। দীপেন রায় সম্পাদিত.pdf Download Now
দুই বাংলার কবিতায় মা ।। রফিক আজাদ সম্পাদিত.pdf Download Now
কবিতাসংগ্রহ ।। উৎপলকুমার বসু.pdf Download Now
১০০ কবিতা.pdf Download Now
কবিতাসংগ্রহ ২ ।। অমিয় চক্রবর্তী.pdf Download Now
শ্রেষ্ঠ কবিতা ।। শঙ্খ ঘোষ.pdf Download Now
কবিতাসংগ্রহ ।। জয়দেব বসু.pdf Download Now
কবিতাসংগ্রহ ।। মন্দাক্রান্তা সেন.pdf Download Now
কয়েকটি কণ্ঠস্বর ।। মণিভূষণ ভট্টাচার্য.pdf Download Now
জেগে আছি,বীজে বৃক্ষে ফুলে ।। পূর্ণেন্দু পত্রী.pdf Download Now
শ্রেষ্ঠ কবিতা ।। আলোক সরকার.pdf Download Now
নির্বাচিত কবিতা ।। বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf Download Now
তিনভুবনের কবিতা ।। উদয় বন্দ্যোপাধ্যায় ও সাগর চক্রবর্তী সম্পাদিত.pdf Download Now
হরিণা বৈরী ।। কবিতা সিংহ.pdf Download Now
ধ্যানে , ব্যবধানে ।। সমরেন্দ্র সেনগুপ্ত.pdf Download Now
নির্বাচিত কবিতা ।। কিরণশঙ্কর সেনগুপ্ত.pdf Download Now
মে দিনের কবিতা.pdf Download Now
শ্রেষ্ঠ কবিতা ।। শামসুর রাহমান.pdf Download Now
কবিতাসমগ্র ৩ খণ্ড ।। বিষ্ণু দে.pdf Download Now
কবিতাসংগ্রহ ১ ।। জয় গোস্বামী.pdf Download Now
মৈনাক ।। কামাক্ষীপ্রসাদ চট্টোপাধ্যায়.pdf Download Now
ব্রেখট কবিতাসংগ্রহ ।। সুব্রত রুদ্র সম্পাদিত.pdf Download Now
শতদেশের কবিতা ।। কুমারেশ চক্রবর্তী সম্পাদিত.pdf Download Now
ছড়ায় ছড়ায় বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf Download Now
একালের কবিতা ।। বিষ্ণু দে সম্পাদিত.pdf Download Now
আলোকিত সমন্বয় ।। আলোক সরকার.pdf Download Now
কবিতা সংকলন ১ খণ্ড ।। মীনাক্ষী দত্ত সম্পাদিত.pdf Download Now
যে আঁধার আলোর অধিক ।। বুদ্ধদেব বসু.pdf Download Now
দৌপদীর শাড়ি ।। বুদ্ধদেব বসু.pdf Download Now
চাই বিষ অমরতা ।। মহাদেব সাহা.pdf Download Now

নবনীতা দেবসেনের শ্রেষ্ঠ কবিতা.pdf Download Now
দুই বাংলার ভালবাসার কবিতা ।। শামসুর রহমান ও সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় সম্পাদিত.pdf Download Now
সপ্তদশ অশ্বারোহী ।। কবিতা সিংহ সম্পাদিত.pdf Download Now
পদ্যসমগ্র ১ খণ্ড ।। শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের.pdf Download Now
হাজার বছরের প্রেমের কবিতা.pdf Download Now
কালপুরুষ ।। বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায় সম্পাদিত.pdf Download Now
কবিতাসমগ্র ২ ।। বিষ্ণু দে.pdf Download Now
শ্রেষ্ঠ কবিতা ।। প্রণবেন্দু দাশগুপ্ত.pdf Download Now
দিন আনি দিন খাই ।। তারাপদ রায়.pdf Download Now
কবিতাসমগ্র ১ খণ্ড ।। অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত.pdf Download Now

  • দিন আনি দিন খাই ।। তারাপদ রায় – Download Now
  • হাজার বছরের প্রেমের কবিতা – Download Now
  • নবনীতা দেবসেনের শ্রেষ্ঠ কবিতা – Download Now
  • কালপুরুষ ।। বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায় সম্পাদিত – Download ণও
  • সপ্তদশ অশ্বারোহী ।। কবিতা সিংহ সম্পাদিত – Download Now
  • কবিতাসমগ্র ১ খণ্ড ।। অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত – Download Now
    • পদ্যসমগ্র ১ খণ্ড ।। শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের – Download Now
    • দুই বাংলার ভালবাসার কবিতা ।। শামসুর রহমান ও সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় সম্পাদিত – Download Now
    • কবিতাসমগ্র ২ ।। বিষ্ণু দে – Download Now
    • শ্রেষ্ঠ কবিতা ।। প্রণবেন্দু দাশগুপ্ত – Download Now
    • ছড়ায় ছড়ায় বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায় – Download Now
    • চাই বিষ অমরতা ।। মহাদেব সাহা – Download Now
    • যে আঁধার আলোর অধিক ।। বুদ্ধদেব বসু – Download Now
    • ব্রেখট কবিতাসংগ্রহ ।। সুব্রত রুদ্র সম্পাদিত – Download Now
    • শতদেশের কবিতা ।। কুমারেশ চক্রবর্তী সম্পাদিত – Download Now
    • দৌপদীর শাড়ি ।। বুদ্ধদেব বসু – Download Now
    • একালের কবিতা ।। বিষ্ণু দে সম্পাদিত – Download Now
    • মৈনাক ।। কামাক্ষীপ্রসাদ চট্টোপাধ্যায় – Download Now
    • আলোকিত সমন্বয় ।। আলোক সরকার – Download Now
    • কবিতা সংকলন ১ খণ্ড ।। মীনাক্ষী দত্ত সম্পাদিত – Download Now
    • নির্বাচিত কবিতা ।। কিরণশঙ্কর সেনগুপ্ত – Download Now
    • কবিতাসমগ্র ৩ খণ্ড ।। বিষ্ণু দে – Download Now
    • ধ্যানে , ব্যবধানে ।। সমরেন্দ্র সেনগুপ্ত – Download Now
    • কবিতাসংগ্রহ ১ ।। জয় গোস্বামী – Download Now
    • তিনভুবনের কবিতা ।। উদয় বন্দ্যোপাধ্যায় ও সাগর চক্রবর্তী সম্পাদিত – Download Now
    • হরিণা বৈরী ।। কবিতা সিংহ – Download Now
    • শ্রেষ্ঠ কবিতা ।। আলোক সরকার – Download Now
    • কবিতাসংগ্রহ ।। উৎপলকুমার বসু – Download Now
    • মে দিনের কবিতা – Download Now
    • নির্বাচিত কবিতা ।। বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায় – Download Now
    • শ্রেষ্ঠ কবিতা ।। শামসুর রাহমান – Download Now
    • শ্রেষ্ঠ কবিতা ।। শঙ্খ ঘোষ – Download Now
    • কবিতাসংগ্রহ ।। মন্দাক্রান্তা সেন – Download Now
    • ৬০ কবির সাম্প্রতিক কবিতা ।। দীপেন রায় সম্পাদিত – Download Now
    • ১০০ কবিতা – Download Now
    • কবিতাসংগ্রহ ।। জয়দেব বসু – Download Now
    • কবিতাসংগ্রহ ২ ।। অমিয় চক্রবর্তী – Download Now
    • কয়েকটি কণ্ঠস্বর ।। মণিভূষণ ভট্টাচার্য – Download Now
    • জেগে আছি,বীজে বৃক্ষে ফুলে ।। পূর্ণেন্দু পত্রী – Download Now
    • দুই বাংলার কবিতায় মা ।। রফিক আজাদ সম্পাদিত – Download Now
    • কবিতাসমগ্র ১ খণ্ড ।। বিষ্ণু দে – Download Now
    • আধুনিক বাংলা কবিতা ।। দিনেশ দাস সম্পাদিত – Download Now
    • দিনগুলি রাতগুলি ।। শঙ্খ ঘোষ – Download Now
    • লঘুসঙ্গীত ভোরের হাওয়ার মুখে ।। অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত – Download Now

বাকি বইগুলোর আপডেটের কাজ চলতেছে.

আন্তর্জালে ফেঁসেই থাকি, কিন্তু তখনও যে কোনো বই পাওয়ার অান্তর্জালিয়াতি দানা বাঁধে নি। ফলতঃ সামান্য কিছু ‘আধুনিক’ কবিতা পাওয়া যায় – ভাষা প্রযুক্তি গবেষণা পরিষদের কল্যাণে রবীন্দ্রনাথ পুরোটাই। অন্যদিকে ইউটিউব তখনও বেবি – ফলে বাংলা গানও পাওয়া দুরূহ। মনে হতে লাগলো – যদি নিজেই আমার ভালো লাগা কবিতা নিয়ে আমার অঙ্কচূড়-এ (ঐ, মানে ল্যাপটপ আরকি) একটা ফাইল বানিয়ে রাখই, তবে তা আমার সঙ্গে বিচিত্রপথে যেতে পারে, হতেও পারে সর্বত্রগামী। যেই ভাবা, সেই কাজ। একটি সপ্তাহান্তে অলস অবসরে আঙ্কিক অভ্যাসে ছুটি নিয়ে, আলফা-বিটা-গামার কাছে ক্ষমা চেয়ে ধামাচাপা দিয়ে লেগে পড়লাম কবিতা সংকলন করতে। কাজটি খানিক বাড়তেই ঘরে ফেরার সুর বাজতে লাগলো। আর ঘরে ফিরে তো, সব না হলেও, অনেক কিছুই ‘বাংলা’ (উঁহু, তরলটির কথা বলছিনা) – অতএব মহানন্দে – লেডিজ ফিংগারের বদলে ঢ্যাঁড়শ চিবোতে চিবোতে দারাপুত্রের মুখেই কবিতা দেখতে লাগলাম। কিন্তু, বৈদ্যুতিন বই, বা সংক্ষেপে বৈ-বই (মানে ই-বুক আরকী) তৈরির মহড়া হয়ে গেলো। এসবই আমার কিণ্ডল নামক বস্তুটি কেনার অনেক আগের কথা।

 

বছর খানেক, কী তার কিছু বেশি সময়, আগে কিছু বাংলা বই-এর কিণ্ডল সংস্করণ করার সফলতা আবার আগের ভাবনাটাকে উসকে দিলো। এবারে ব্যাপারটার একটা নিটোল ও নিরেট রূপ দেবার কথা ভাবতে শুরু করলাম। ভাবলাম, একটা কোনো আধুনিক কবিতার বইকে কিণ্ডলরূপদান করবো। কোন বইটি নেবো?

 

বাংলায় কবিতা সংকলন গ্রন্থ কম নেই। বস্তুত বাংলা ভাষার এতাবৎ আবিষ্কৃত প্রথম নিদর্শনটি, চর্যাচর্যবিনিশ্চয়, একটি বৌদ্ধ পদসংকলন। এগুলো গান – রাগনির্দেশ আছে এবং বহু রাগ অধুনালুপ্ত। বৈষ্ণব কবিতার সংকলন করেছিলেন রবীন্দ্রনাথ, অবনীন্দ্রনাথ করেছিলেন ছড়া সংকলন। ‘আধুনিক’ বা রবীন্দ্রোত্তর যুগের কবিতার প্রথম গুরুত্বপূর্ণ সংকলনটির (এটিই প্রথম কি?) সংকলক বুদ্ধদেব বসু। এরপর আরও অনেক বই বের হয় – আবু সয়ীদ আইয়ুব ও হীরেন মুখোপাধ্যায় আরও একটি আধুনিক কবিতার সংকলন বের করেন। ‘সমকালীন বাংলা কবিতা’ সংকলন করেন সুব্রত রুদ্র, ১৯৫১ সালে। ষাট-সত্তরের কবিতা নিয়ে উত্তম দাশের সংকলন ‘কবিতা: ষাট-সত্তর’ বের হয় ১৯৮২তে। এঁরই আরও দুটি সংকলন ‘আধুনিক প্রজন্মের কবিতা’ ও ‘শতাব্দীর বাংলা কবিতা’ দুটি চমৎকার সংকলন। গত শতাব্দীর সাতের দশক বের হয় অমিতাভ দাশগুপ্ত সংকলিত অনবদ্য শীর্ণকায় ‘কবিতার পুরুষ’, কয়েক বছর আগে এর দ্বিতীয় সংস্করণও প্রকাশিত হয়, শীর্ণতা অক্ষুণ্ণ রেখে।

 

অন্যদিকে সুপ্রাচীন যুগ থেকে ১৯৯১ (বোধহয়) পর্যন্ত কবিতা নিয়ে দুই খণ্ডে বের হয় ‘বাংলা কবিতা সমুচ্চয়’, প্রকাশক সাহিত্য অকাদেমি, সংকলক যথাক্রমে সুকুমার সেন ও অসিতকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়। নয়ের দশকের মাঝামাঝি বের হয় দুই খণ্ডে ‘বাংলা আধুনিক কবিতা’ – দেবীপ্রসাদ বন্দ্যোপাধ্যায় ও দীপক রায়ের সম্পাদনায়। এর দ্বিতীয় খণ্ড বের হয় ১৯৯৫ সালে। ষাটের শুরুতে বীতশোক ভট্টাচার্য সম্পাদনা করেন “হাজার বছরের বাংলা কবিতা”। দীনেশ দাস সম্পাদনা করেন ‘আধুনিক বাংলা কবিতা’। প্রভাত চৌধুরী বের করেন ‘উত্তর-আধুনিক কবিতা’। আরেকটি অনবদ্য অথচ অসম্পূর্ণ প্রয়াস মণীন্দ্র দত্তর ‘আবহমান বাংলা কবিতা’। এখনও পর্যন্ত চর্যাপদ থেকে নজরুল পর্যন্ত সংকলিত হয়েছে। বহু চেষ্টা করেও জানতে পারিনি তৃতীয় খণ্ড প্রকাশিত হয়েছে কি না। অথচ তৈরি হচ্ছে একটি পরিপূর্ণ সংকলন – কবি পরিচয় সমেত।

 

এই রকম সাধারণ সংস্করণ ছাড়াও বের হয়েছে কিছু বিষয়ভিত্তিক সংকলন – প্রধান বিষয় অবশ্যই প্রেম। আবু সয়ীদ আয়ুবের ‘পঁচিশ বছরের প্রেমের কবিতা’ বের হয় অনেক আগে। সুবিশাল কালিক ব্যপ্তি নিয়ে প্রেমেন্দ্র মিত্রর ‘প্রেম যুগে যুগে’ বের হয় গত শতকের চারের দশকের মাঝামাঝি। গত শতকের শেষ দুই দশকে এই রকম সংকলনের সংখ্যা অনেক বেড়ে যায়। সবচেয়ে প্রভাবশালী এবং সর্বোত্তম (নেহাতই ব্যক্তিগত মত) হল ‘এ শতকের প্রেমের কবিতা’ – সংকলক সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় ও দীপক রায়। এই সময়ই এ বাংলার বুঝি হঠাৎ নজরে পরে ওপার বাংলার কাব্যজগতের কথা, দীনেশ দাস ছাড়া সবাই ভুলেই ছিলেন। সংকলিত হয় ‘দুই বাংলার … … কবিতা’। শূন্যস্থান পূরণের শব্দগুলি হলো – ‘ভালোবাসার’, ‘বিরহের’, ‘শ্রেষ্ঠ’, ‘প্রেমের’ – ইত্যাদি। মূলতঃ শতাব্দীর, সহস্রাব্দীরও, শেষ নাগাদ এরকম সংকলনের ঢল নামে। যেমন স্বকীয়তায় উজ্জ্বল উত্তম দাশের ‘শতাব্দীর বাংলা কবিতা’ তেমনই প্রতিনিধিত্বমূলক সংকলক শ্যামলকান্তি দাশের ‘হাজার কবির হাজার কবিতা’। দেবীপ্রসাদ বন্দ্যোপাধ্যায় বের করেন ‘রঙিন কবিতা’ যা মূলতঃ হাস্যরসাত্মক কবিতা নিয়ে। পরে বের হয় প্যারডি সংস্করণ। লিমেরিক সংগ্রহ বেরিয়েছিলো একটি।

 

দুর্ভাগ্যবশতঃ প্রতিটিই সংকলনই জন্মগত অঙ্গহীনতার ত্রুটিতে ভুগতে লাগলো – কারণ ‘দুই বাংলা সিরিজের বাইরে ওপার বাংলার কবিরা উপেক্ষিত রইলেন। বাংলাদেশে কিন্তু একটু ভিন্ন চিত্র। অনবদ্য সংকলন করলেন হুমায়ুন আজাদ – ‘আধুনিক বাংলা কবিতা’ – আধুনিকতার সংজ্ঞা তাঁর সংকলনে এতটাই তীব্র এবং কঠোর যে আল মাহমুদও বাদ পড়েন ‘মৌলবাদে দীক্ষিত’ হওয়ার কারণে।

 

এছাড়া আছে কিছু পত্রিকাভিত্তিক সংকলন। ১৯৮৩ সালে ‘দেশ’ পত্রিকার সুবর্ণজয়ন্তীতে বের হয় দেশ সুবর্ণজয়ন্তী সংকলন। একই পত্রিকা এরপর বের করে আরেকটি সংকলন – ১৯৮৩ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত কবিতা ও এরও পর বেরহয় হীরকজয়ন্তী সংকলন। ১৯৯১-এ ‘পরিচয়’ পত্রিকার ৬০ বৎসর পূর্তিতে একটি সংকলন বের হয় – পত্রিকারই একটি সংখ্যা হিসাবে। কোনো বাণিজ্যিক সংস্করণ বের হয় নি, ফলে বইটি প্রায় অবলুপ্ত। এছাড়া এখন বাজারে সুলভ ‘কবিতা’ বা ‘কৃত্তিবাস’ পত্রিকার সংকলন।

 

কর্মোপলক্ষে প্রোষিতবাসী (প্রবাসী নহে) হওয়ার কারণে সবগুলো সংকলন এখন আমার হাতে নেই – পৈত্রিক বাড়ির আলমারিতে সযত্নে রক্ষিত। শুধু আছে দেবীপ্রসাদ-দীপক, বুদ্ধদেব বসু, হুমায়ুন আজাদ, উত্তম দাশ ও শ্যামলকান্তি দাশের বইগুলি।তাহলে কিণ্ডল সংস্করণ তৈরি করতে কোনটি নেব? বুদ্ধদেবের বইটি বহুপঠিত ও জনপ্রিয়তম – কিন্তু শেষ সংস্করণ ১৯৭৩ সালের। ব্যক্তিপুজায় বিশ্বাসী বাঙালী এই বই-এর নব্য সংস্করণ করে নি – যেমন করেনি হরিচরণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বা জ্ঞানেন্দ্রমোহন দাশের অভিধানের (সুবলচন্দ্র মিত্রর অভিধানের অবশ্য নব্যায়ন হয়েছে)। তাই চোখ পড়লো দেবীপ্রসাদ-দীপকের সংকলনটির উপর। নেমে পড়লাম কাজে – অর্ধাঙ্গিনীর স্মার্ট ফোনটি সকালে কিছুসময়ের জন্য নিয়ে ছবি তুলে কাজ চলতে থাকলো – আমার ক্যাবলা ফোনটিতে তা হওয়া সম্ভব ছিলো না।

 

কাজটি বেশ খানিকটা এগিয়ে যেতে বুঝতে পারলাম বইটির সীমাবদ্ধতা এবং কাজটির অসীম সম্ভাবনা। প্রথমটিই আগে বলি।

এই বইটির প্রায় পাঁচশ পাতার অখণ্ড সংস্করণের বস্তুত ১৯৯৫ সালের সংস্করণই – নব্যায়ন হয় নি। কবিতাগুলি প্রতিনিধিত্বস্থানীয় নিঃসন্দেহে। কিন্তু সর্বাংশে নয়। বহু গুরুত্বপূর্ণ কবিতা অন্তর্ভুক্ত হয় নি। বাংলাদেশের কবিরা অনুপস্থিত – শামসুর রাহমানও। জয়ের অনেক কবিতাই বেরিয়েছে ততদিনে অথচ তিনি অনুপস্থিত। বাংলা আধুনিক কবিতার চালচিত্র স্পষ্ট আলোচনা করেছেন খানিকটা বুদ্ধদেব বসু তাঁর সংকলন গ্রন্থের ভূমিকায়। দীপ্তি ত্রিপাঠির অনন্যসাধারণ বইটিও এই আলোচনায় সমৃদ্ধ। চমৎকার আলোচনা করেন দেবীপ্রসাদ বা উত্তম দাশ। কিন্তু সেই সংজ্ঞায় তো ‘রূপসী বাংলা’ পড়ে না। তাহলে সে কবিতা কি সংকলনের বাইরেই থাকবে? কিংবা সুকুমার রায়? (বুদ্ধদেবের বইটি ব্যতিক্রম)

 

এই সব ভাবতে ভাবতে মনে এলো এর অসীম সম্ভাবনার কথা। আপেক্ষিকতাবাদ সংক্রান্ত গবেষণার ‘জীবন্ত’ রিভিউ-এর একটি গবেষণা পত্রিকা (জার্নাল) প্রকাশিত হয়েছে আন্তর্জালের বাড়বাড়ন্তর যুগে – লিভিং রিভিউস ইন রিলেটিভিটি। এটি ছাপানো পত্রিকা নয়, এর অস্তিত্ব আন্তর্জালেই। ছাপানো বই-এর মতো ‘মৃত’ নয় (সাদের অসামান্য ‘দ্য স্কলার’ কবিতাটি স্মর্তব্য) যার সজীবতা পাঠকের পাঠসজীবতার উপর নির্ভরশীল। এটিতে প্রকাশিত প্রবন্ধগুলি সতত পরিবর্তনশীল – জীবন্ত। লেখক মনে করলেই নতুন গবেষণার ফলাফল এলেই প্রবন্ধটির নব্যায়ন হবে/হয়।

 

তাহলে তো আমরা তা-ই করতে পারি। আমাদের তো বই-এর সীমাবদ্ধতায় বন্দি থাকার বাধ্যবাধকতা নেই – সংস্করণে, আকারে – কোন কিছুতেই নেই। সংস্করণটি বাণিজ্যিক নয় – আকারের উপর দাম বাড়বে না। বইএর আকার যত বড়ই হোক, কিণ্ডল যন্ত্রটির আকার অপরিবর্তনীয়। ‘আধুনিক’ কবিতায়ই বা আটকে থাকবো কেন? কেন নয় চর্যাপদ থেকে শুরু – ‘আবহমান বাংলা কবিতা’র মত? গোটা কাজটাই যে সব সফটওয়ারে হলো, সব ফ্রি – মুক্ত – স্বেচ্ছাসেবকরা করেছে। এখানেও তো সেরকমই সম্ভব! তাই প্রকাশকের নাম দিয়েছি – মুক্ত পুস্তক সমবায়।

 

আরও কিছু ভাবনা এলো চয়নের ব্যাপারে। রবীন্দ্রনাথ নোবেল পুরস্কার পেলেন গীতিসংকলনের জন্য; বব ডিলানও তাই। অথচ আমাদের কাব্যে গানের ঠাঁই নেই। জয় গোস্বামীর গল্পের কবি হাঁটছেন আর ভাবছেন কিছু কবিতার কথা – এরকম কবিতা তো আমি লিখতে পারিনি – পরক্ষণেই সান্ত্বনা পাচ্ছেন এই ভেবে যে কেউ তো লিখেছেন! উল্লেখিত সবকটি কবিতাই আসলে গান – সুমনের।

 

অতঃপর সংকলনটি এইরকম দাঁড়ালো। শুরু করলাম রবীন্দ্রনাথের কিছু কবিতা নিয়ে। পরবর্তী সংস্করণগুলিতে পিছোতে পিছোতে চর্যাপদ পর্যন্ত যাবো। চিন্তা নেই, মণীন্দ্র দত্ত সঙ্গে আছেন। আপাততঃ এসেছি শ্রীজাত পর্যন্ত। বাদ পড়েছেন (দেবীপ্রসাদ-দীপকএ বাদ আছে – তাই) সুবোধ-মল্লিকা-মৃদুলদাশগুপ্ত-মন্দাক্রান্তা-যশোধরা-পিনাকী-বিনায়ক ও আরও অনেকে। শামসুরের কয়েকটি কবিতা নিতে পেরেছি আন্তর্জাল থেকে। নেই আলমাহমুদ-নির্মলেন্দুগুণ-মহাদেবসাহা-রুদ্র এই রকম অধিকাংশ বাংলাদেশের কবি। যাঁরা আছেন তাঁদেরও আরও কবিতা জুড়বো ভবিষ্যতে। গান আছে সলিল-সুমন-প্রতুল বা মীরা দেব বর্মণ বা সুবোধ পুরোকায়স্থর। মজার কবিতা, হাসির কবিতা বাদ থাকলো – আপাততঃ। বেশ কিছু কবিতা আছে যা দেবীপ্রসাদ-দীপকএ নেই। জীবনানন্দ, শক্তি, অরুণকুমার সরকার – এদের কিছু কবিতা দিয়েছি যা আমার ভালো লাগার। রবীন্দ্রনাথের কবিতাও দিয়েছি সামান্য কয়েকটি।

 

চেষ্টা করবো দুমাস অন্তর একটা সংস্করণ বের করতে। কবিতা বা সাহিত্য আমার পেশাগত বিষয় নয়। তাই ‘প্র-চু-র’ পাঠ হয় না। মণীন্দ্র দত্ত সংকলন তৈরি করতে “লক্ষাধিক” কবিতা পাঠ করেছেন। আমার চয়ন করার যোগ্যতা নেই। তাছাড়া এই অনধিক পাঁচশো পাতার বই-এর সবগুলো কবিতা পাঠের অভিজ্ঞতা সুখের নয়! তাই ব্যবহারকারীদের কাছে আবেদন জানাবো, নতুন কবিতার প্রস্তাব দেবার জন্য। হাতের কাছে বেশির ভাগ বই-ই নেই – কর্মোপলক্ষে দূরে থাকি বলে – কোভিড পরিস্থিতিও দায়ী খানিকটা। বছর খানেক এই ভাবে চলুক। হাতের কাছে অন্যান্য বইগুলো তো রইলোই। তারপর যোগ্যরা দায়িত্ব নেবে একে চালিয়ে নেবার – নইলে-রইলে – কবিতা না পড়ে …

Adhunik Bangla Kobita PDF

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কবিতার বই pdf download

চিত্ত যেথা ভয়শূন্য
চিত্ত যেথা ভয়শূন্য, উচ্চ যেথা শির,

জ্ঞান যেথা মুক্ত, যেথা গৃহের প্রাচীর

আপন প্রাঙ্গণতলে দিবসশর্বরী

বসুধারে রাখে নাই খণ্ড ক্ষুদ্র করি,

যেথা বাক্য হৃদয়ের উৎসমুখ হতে

উচ্ছ্বসিয়া উঠে, যেথা নির্বারিত স্রোতে

দেশে দেশে দিশে দিশে কর্মধারা ধায়

অজস্র সহস্রবিধ চরিতার্থতায়,

যেথা তুচ্ছ আচারের মরুবালুরাশি

বিচারের স্রোতঃপথ ফেলে নাই গ্রাসি,

পৌরুষেরে করে নি শতধা, নিত্য যেথা

তুমি সর্ব কর্ম চিন্তা আনন্দের নেতা,

নিজ হস্তে নির্দয় আঘাত করি, পিতঃ;

ভারতেরে সেই স্বর্গে করো জাগরিত॥

 

কৃপণ
আমি ভিক্ষা করে ফিরতেছিলেম

গ্রামের পথে পথে,

তুমি তখন চলেছিলে

তোমার স্বর্ণরথে।

অপূর্ব এক স্বপ্ন-সম

লাগতেছিল চক্ষে মম–

কী বিচিত্র শোভা তোমার,

কী বিচিত্র সাজ।

আমি মনে ভাবেতেছিলেম,

এ কোন্‌ মহারাজ।

আজি শুভক্ষণে রাত পোহালো

ভেবেছিলেম তবে,

আজ আমারে দ্বারে দ্বারে

ফিরতে নাহি হবে।

বাহির হতে নাহি হতে

কাহার দেখা পেলেম পথে,

চলিতে রথ ধনধান্য

ছড়াবে দুই ধারে–

মুঠা মুঠা কুড়িয়ে নেব,

নেব ভারে ভারে।

দেখি সহসা রথ থেমে গেল

আমার কাছে এসে,

আমার মুখপানে চেয়ে

নামলে তুমি হেসে।

দেখে মুখের প্রসন্নতা

জুড়িয়ে গেল সকল ব্যথা,

হেনকালে কিসের লাগি

তুমি অকস্মাৎ

“আমায় কিছু দাও গো’ বলে

বাড়িয়ে দিলে হাত।

মরি, এ কী কথা রাজাধিরাজ,

“আমায় দাও গো কিছু’!

শুনে ক্ষণকালের তরে

রইনু মাথা-নিচু।

তোমার কী-বা অভাব আছে

ভিখারী ভিক্ষুকের কাছে।

এ কেবল কৌতুকের বশে আমায় প্রবঞ্চনা

ঝুলি হতে দিলেম তুলে একটি ছোট কণা।

 

যবে পাত্রখানা ঘরে এনে উজাড় করি, এ কী!

ভিক্ষা মাঝে একটি ছোটো সোনার কণা দেখি।

দিলেম যা রাজভিখারীরে

স্বর্ণ হয়ে এল ফিরে

তখন কাঁদি চোখের জলে দু’টি নয়ন ভ’রে

তোমায় কেন দেইনি আমার সকল শূন্য করে।

বাঁশি
কিনু গোয়ালার গলি।

দোতলা বাড়ির

লোহার-গরাদে-দেওয়া একতলা ঘর

পথের ধারেই।

লোনা-ধরা দেওয়ালেতে মাঝে মাঝে ধসে গেছে বালি,

মাঝে মাঝে স্যাঁতা-পড়া দাগ।

 

মার্কিন থানের মার্কা একখানা ছবি

সিদ্ধিদাতা গণেশের

দরজার ‘পরে আঁটা।

আমি ছাড়া ঘরে থাকে আরেকটা জীব

এক ভাড়াতেই,

সেটা টিকটিকি।

তফাত আমার সঙ্গে এই শুধু,

নেই তার অন্নের অভাব।

 

বেতন পঁচিশ টাকা,

সদাগরি আপিসের কনিষ্ঠ কেরানি।

খেতে পাই দত্তদের বাড়ি

ছেলেকে পড়িয়ে।

শেয়ালদা ইস্টিশনে যাই,

সন্ধেটা কাটিয়ে আসি,

আলো জ্বালাবার দায় বাঁচে।

এঞ্জিনের ধস্‌ ধস্‌,

বাঁশির আওয়াজ,

যাত্রীর ব্যস্ততা,

কুলি-হাঁকাহাঁকি।

সাড়ে দশ বেজে যায়,

তার পরে ঘরে এসে নিরালা নিঃঝুম অন্ধকার।

 

ধলেশ্বরীনদীতীরে পিসিদের গ্রাম।

তাঁর দেওরের মেয়ে,

অভাগার সাথে তার বিবাহের ছিল ঠিকঠাক।

লগ্ন শুভ, নিশ্চিত প্রমাণ পাওয়া গেল–

সেই লগ্নে এসেছি পালিয়ে।

মেয়েটা তো রক্ষে পেলে,

আমি তথৈবচ।

 

ঘরেতে এল না সে তো, মনে তার নিত্য আসাযাওয়া–

পরনে ঢাকাই শাড়ি, কপালে সিঁদুর।

 

বর্ষা ঘন ঘোর।

ট্রামের খরচা বাড়ে,

মাঝে মাঝে মাইনেও কাটা যায়।

গলিটার কোণে কোণে

জমে ওঠে পচে ওঠে

আমের খোসা ও আঁঠি, কাঁঠালের ভূতি,

মাছের কান্‌কা,

মরা বেড়ালের ছানা,

ছাইপাঁশ আরো কত কী যে!

ছাতার অবস্থাখানা জরিমানা-দেওয়া

মাইনের মতো,

বহু ছিদ্র তার।

আপিসের সাজ

গোপীকান্ত গোঁসাইয়ের মনটা যেমন,

সর্বদাই রসসিক্ত থাকে।

বাদলের কালো ছায়া

স্যাঁৎসেঁতে ঘরটাতে ঢুকে

কলে-পড়া জন্তুর মতন

মূর্ছায় অসাড়।

দিন রাত মনে হয়, কোন্‌ আধমরা

জগতের সঙ্গে যেন আষ্টেপৃষ্ঠে বাঁধা পড়ে আছি।

 

গলির মোড়েই থাকে কান্তবাবু,

যত্নে-পাট-করা লম্বা চুল,

বড়ো বড়ো চোখ,

শৌখিন মেজাজ।

কর্নেট বাজানো তার শখ।

মাঝে মাঝে সুর জেগে ওঠে

এ গলির বীভৎস বাতাসে–

কখনো গভীর রাতে,

ভোরবেলা আধো অন্ধকারে,

কখনো বৈকালে

ঝিকিমিকি আলোয় ছায়ায়।

হঠাৎ সন্ধ্যায়

সিন্ধু-বারোয়াঁয় লাগে তান,

সমস্ত আকাশে বাজে

অনাদি কালের বিরহবেদনা।

তখনি মুহূর্তে ধরা পড়ে

এ গলিটা ঘোর মিছে,

দুর্বিষহ, মাতালের প্রলাপের মতো।

হঠাৎ খবর পাই মনে

আকবর বাদশার সঙ্গে

হরিপদ কেরানির কোনো ভেদ নেই।

বাঁশির করুণ ডাক বেয়ে

ছেঁড়াছাতা রাজছত্র মিলে চলে গেছে

এক বৈকুণ্ঠের দিকে।

 

এ গান যেখানে সত্য

অনন্ত গোধূলিলগ্নে

সেইখানে

বহি চলে ধলেশ্বরী;

তীরে তমালের ঘন ছায়া;

আঙিনাতে

যে আছে অপেক্ষা ক’রে, তার

পরনে ঢাকাই শাড়ি, কপালে সিঁদুর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!